অন্যান্যটেক নিউজ

কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের আয় থেকে ট্যাক্স কাটবে ইউটিউব

ইউটিউবের কল্যাণে এখন সহজেই ট্যালেন্টেড কন্টেন্ট ক্রিয়েটররা ভিডিও বানিয়ে টাকা আয় করতে পারেন। অনেকে তো ইউটিউবের আয় দিয়েই  তাদের জীবিকা নির্বাহ করেন। অবশ্য এ বছর, যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ট্যাক্স নীতিমালার জন্য অনেক কন্টেন্ট ক্রিয়েটরই বিড়ম্বনায় পড়তে পারেন। কেননা, ইউটিউব ঘোষণা দিয়েছে যে এখন থেকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে কোনো ভিডিওতে ভিউ পড়লে এবং সেই ভিউ এর জন্য যদি মনিটাইজেশন রেভিনিউ আসে, তাহলে তা থেকে তারা ট্যাক্স কেটে নিবে। এ নিয়ম যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের ইউটিউব চ্যানেলগুলোর জন্যও প্রযোজ্য।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের ইউটিউব চ্যানেলগুলোর কাছে একটি ইমেইল পাঠিয়ে এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ইউটিউব। মূলত, এখন থেকে ইউটিউবকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে আসা কোনো ভিডিও ভিউয়ের জন্য যে মনিটাইজেশন রেভিনিউ জেনারেট হবে, তার জন্য যুক্তরাষ্ট্র এবং এর বাইরের দেশের ইউটিউব চ্যানেলগুলো থেকে তারা ট্যাক্স কাটবে। যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের কাছে পাঠানো ইমেইলে তারা উল্লেখ করেছে যে,

”We’re reaching out because Google will be required to deduct U.S. taxes from payments to creators outside of the U.S. later this year (as early as June 2021). Over the next few weeks, we’ll be asking you to submit your tax info in AdSense to determine the correct amount of taxes to deduct, if any apply. If your tax info isn’t provided by May 31st, 2021, Google may be required to deduct up to 24% of your total earnings worldwide.”

অর্থাৎ, এ বছরের জুন মাস থেকে তারা শুধু যুক্তরাষ্ট্র থেকে আসা কোনো ভিডিও ভিউয়ের জন্য তারা ট্যাক্স কাটবে। আর এ জন্যে আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে অ্যাডসেন্সে আপনার ট্যাক্সের তথ্য দিতে হবে। যদি আপনি ৩১শে মে ২০২১ তারিখের মধ্যে আপনার ট্যাক্সের তথ্য না দেন, তাহলে আপনার পুরো মনিটাইজেশন রেভিনিউর (সেটা যুক্তরাষ্ট্র থেকে আসুক বা অন্য কোনো দেশ থেকে আসুক) ২৪% পর্যন্ত কেটে রাখতে পারে। মূলত মার্কিন আইনের ইউএস ইন্টারনাল রেভিনিউ কোডের চ্যাপ্টার ৩ অনু্যায়ী এই রেভিনিউ থেকে ট্যাক্স নিচ্ছে ইউটিউব।

এদিকে নিজেদের সাপোর্ট পেজে এ বিষয়ে ঠিক কিভাবে তারা ট্যাক্স কাটবে এবং কত টাকা ট্যাক্স হিসেবে কাটবে তা বিস্তারিত ভাবে উদাহরণসহ বিস্তারিতভাবে জানিয়েছে গুগল:

Example: A Creator in India earns $1,000 in revenue from YouTube in the last month. Of the $1000 in total revenue, their channel generated $100 from U.S. viewers. 

Here are some possible withholding scenarios: 

  • Creator doesn’t submit tax info: Final deduction is $240 because the withholding tax rate if you don’t submit a form is up to 24% of total earnings. This means that until we have your completed tax info, we’ll need to deduct up to 24% of your total earnings worldwide – not just your U.S. earnings.
  • Creator submits tax info and claims a treaty benefit: Final tax deduction is $15. This is because India and the U.S. have a tax treaty relationship that reduces the tax rate to 15% of earnings from viewers in the U.S. 
  • Creator submits tax info, but is not eligible for a tax treaty: Final tax deduction is $30. This is because the tax rate without a tax treaty is 30% of earnings from viewers in the U.S.

অনুবাদ:

ধরে নেয়া যাক ভারতের একজন কন্টেন্ট ক্রিয়েটর তার ইউটিউব মনিটাইজেশন থেকে গত মাসে ১০০০ ইউএস ডলার আয় করেছেন। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র থেকে আসা ভিউ থেকে তার আয় হয়েছে ১০০ ডলার। এখন,

  • তিনি যদি ট্যাক্সের তথ্য না দিয়ে থাকেন: যেহেতু ট্যাক্সের তথ্য না দিলে ২৪% পর্যন্ত টাকা গুগল কেটে রাখতে পারে, তাই তার পুরো আয় থেকে সর্বোচ্চ ২৪০ ডলার কাটা হবে।
  • তিনি ট্যাক্সের তথ্য দিয়েছেন এবং ট্যাক্স চুক্তির সুবিধা ক্লেইম করলেন: এক্ষেত্রে তার মোট আয় থেকে ১৫ ডলার কেটে নেয়া হবে। কেননা, যুক্তরাষ্ট্রের সাথে ভারতের ট্যাক্স সুবিধা চুক্তি আছে, যার ফলে তার যুক্তরাষ্ট্র থেকে আসা মনিটাইজেশন রেভিনিউর ১৫% কেটে নেয়া হবে।
  • তিনি ট্যাক্সের তথ্য দিয়েছেন কিন্তু ট্যাক্স চুক্তির সুবিধা পাওয়ার যোগ্য নন: এক্ষেত্রে তার মোট আয় থেকে ৩০ ডলার কেটে নেয়া হবে। কেননা, ট্যাক্স চুক্তির জন্য যারা যোগ্য নন, তাদের ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র থেকে আসা মনিটাইজেশন রেভিনিউর ৩০% কেটে নেয়া হবে।

এখন কথা হচ্ছে, আপনি যদি বাংলাদেশের কোনো ইউটিউব কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হন, তাহলে আপনার মনিটাইজেশন রেভিনিউ এই নতুন ট্যাক্স কাটার বিষয়টি ঠিক কতটুকু প্রভাব ফেলবে? এর উত্তরও খুব সহজ। যদি আপনি ঠিকঠাক ভাবে আপনার ট্যাক্সের ডকুমেন্ট সাবমিট করেন এবং আপনার যুক্তরাষ্ট্র থেকে অনেক ভিডিও ভিউ আসে, তাহলে আপনার মনিটাইজেশন রেভিনিউ থেকে কিছু টাকা কাটা হবে। কিন্তু আপনার যদি যুক্তরাষ্ট্র থেকে তেমন ভিউ না আসে, তাহলে এই বিষয়ে দুশ্চিন্তা করার তেমন কারণ নেই।

আর্টিকেলটি ভালো লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। এছাড়াও জয়েন করতে পারেন এটিসির ফেসবুক গ্রুপপেজ এবং ইন্সটাগ্রামে

Avatar

Tahsinul Mohsin

playing with tech is the best way to gather knowledge