অন্যান্য

স্ন্যাপড্রাগন চিপসেটের জীবনকাহিনী (পর্ব-৪)

স্ন্যাপড্রাগনের জীবন কাহিনীর ৪র্থ পর্বে আপনাকে স্বাগতম!

গত তিনটি পর্ব পড়ার পরে যারা স্ন্যাপড্রাগন ৭০০ এর জন্যে অপেক্ষা করছিলেন তাদেরকে দুঃখ দিয়ে আজ হাজির হলাম স্ন্যাপড্রাগন ৮০০ সিরিজ নিয়ে। ৭০০ সিরিজ নিয়ে আমরা এর পরবর্তী কোনো আর্টিকেলে আলোচনা করবো।

স্ন্যাপড্রাগন ৮০০ সিরিজঃ অ্যান্ড্রয়েড চিপসেট জগতের ওয়ান অফ দা বেস্ট SoC লাইনআপ। যেকোনো ফোনের স্পেক্স লিস্টে স্ন্যাপ ৮০০ সিরিজের চিপসেট দেখলে নিঃসন্দেহে বলে দেয়া যায়, ফোনের পারফর্ম্যান্স বেশ ভালো হবে। কোয়ালকম প্রতিবছর স্ন্যাপড্রাগন ৮০০ লাইনআপে এক থেকে দুটি চিপসেট রিলিজ করে থাকে। ৮০০ সিরিজে এপর্যন্ত ১০টি চিপসেট রিলিজ হয়েছে- স্ন্যাপড্রাগন ৮০০, ৮০১, ৮০৫, ৮০৮, ৮১০, ৮২০, ৮২১, ৮৩৫, ৮৪৫ ও ৮৫০। এই ১০টি চিপসেটের মধ্যে স্ন্যাপ ৮৫০ আলাদাভাবে শুধুমাত্র নোটবুক ও ল্যাপটপের জন্যে ডিজাইন করা। চলুন ৮০০ সিরিজের কিছু চিপসেটের স্পেক্স দেখে নেই:-

স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫

  • Octa-core Kryo 280 2.45 GHz (Overclocked 2.6 GHz for PC) (10nM)
  • Adreno 540 GPU
  • LPDDR 4x Ram
  • Up to 16MP Dual & up to 32MP Single camera supported
  • Dual Spectra 180 ISP.
  • Hybrid Autofocus
  • Optical Zoom
  • HDR video supported
  • 4k @ 30fps video recording & 4k @ 60fps playback supported
  • X16 LTE modem.
  • Download & upload speed- 1 Gbps & 150 Mbps
  • Bluetooth 5.0; 2.4 GHz, 5 GHz & 60 GHz Wi-Fi supported
  • QC 4.0 & NFC

স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫:

  • Octa core Kryo 385 2.8 GHz (2nd Gen 10nM)
  • Adreno 640 GPU
  • LPDDR 4x @ 1866 MHz upto 8 GB Ram
    Camera-
  • Up to 16MP Dual Camera
  • Up to 32MP @ 30fps Single Camera
  • Up go 16MP HFR (High Frame Rate) @60fps Single-Camera supported
  • Dual Spectra 280 ISP
  • Multi Frame Noise Reduction (MFNR) with Accelerated Image Stabilization
  • Hybrid Autofocus, Optical Zoom, HDR video support, Dual-Phase Detection
  • Can connect up to 7 Cameras
  • 4k @ 60fps video recording with HDR 10 & playback supported
  • X20 LTE modem. Download & upload speed- 1.2 Gbps & 150 Mbps
  • Bluetooth 5.0; 2.4 GHz, 5 GHz & 60 GHz Wi-Fi supported
  • QC 4.0/4.0+ & NFC

স্ন্যাপড্রাগন ৮৫০ঃ

  • Octa core Kryo 385 2.96 GHz (2nd Gen 10nM)
  • Adreno 630 GPU
  • LPDDR 4x @ 1866 MHz upto 8 GB Ram
    Camera-
  • Up to 16MP Dual Camera
  • Up to 32MP @ 30fps Single Camera
  • Up go 16MP HFR (High Frame Rate) @60fps Single-Camera supported
  • Dual Spectra 280 ISP
  • Multi Frame Noise Reduction (MFNR) with Accelerated Image Stabilization
  • Hybrid Autofocus, Optical Zoom, HDR video support, Dual-Phase Detection
  • 4k @ 30fps video recording & playback supported
  • X20 LTE modem. Download & upload speed- 1.2 Gbps & 150 Mbps
  • Bluetooth 5.0; 2.4 GHz, 5 GHz & 60 GHz Wi-Fi supported
  • QC 4.0/4.0+ & NFC
  • Always connect feature

অ্যাপলের চিপসেট গুলোর পরেই সবথেকে ভালো চিপসেট হলো স্ন্যাপড্রাগন ৮০০ সিরিজের চিপসেট এবং অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন জগতে বেস্ট চিপসেট লাইনআপ স্ন্যাপ ৮০০ সিরিজ।

প্রথমে আসি স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫-এ,
৮৪৫ কোয়ালকমের ২০১৮ সালের ফ্ল্যাগশিপ চিপসেট। আপনি বেসিক, নরমাল, হেভি, হার্ডকোর গেমার; যেধরণের ইউজারই হন না কেন পারফরমেন্স নিয়ে কোনো ধরনের অভিযোগ করার সুযোগ আপনাকে দিবেনা স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫। স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ এর Adreno 630 আপনাকে দিবে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে বেস্ট গ্রাফিক্সের অভিজ্ঞতা। সেকেন্ড জেনারেশনের ১০ ন্যানো মিটার প্রসেসের চিপসেট হওয়ায় ৩৫০০ মিলিয়াম্পিয়ারের একটি ব্যাটারির সাথে স্ন্যাপ ৮৪৫ থেকে পেয়ে যাবেন ৬-৭ ঘণ্টার স্ক্রিন অন টাইম, যা দিয়ে একজন নরমাল ইউজারের একদিন পার করার জন্যে যথেষ্ট। এটি দিয়ে ৬০ এফপিএস এ ৪কে ভিডিও রেকর্ড ও প্লে করতে পারবেন উইথ HDR 10। আজকাল যেখানে অহরহ ৩,৪,৫ ক্যামেরার ফোন রিলিজ হচ্ছে, সেখানে স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ চিপসেটের ফোনে ম্যানুফ্যাকচারাররা ইচ্ছে করলেই ব্যবহার করতে পারেন ৭টি ক্যামেরা। ১ লাখ টাকার মধ্যে স্ন্যাপ ৮৪৫ এর যেকোনো ফোন নিশ্চিন্তেই নিয়ে নিতে পারেন, কারণ এই চিপসেট আপনাকে কোনো ভাবেই হতাশ করবে না।

আমরা অনেকেই ল্যাপটপ ব্যবহার করি। আর ল্যাপটপ ব্যবহারকারীদের একটি প্রধান চিন্তার বিষয় এর ব্যাটারি লাইফ; ব্যাটারি ব্যাকআপ যেনো ল্যাপটপ ব্যবহারকারীদের মাথাব্যাথার কারণ না হয়, তাই কোয়ালকম নিয়ে আসে নোটবুক ও ল্যাপটপের জন্যে ডিজাইন করা চিপসেট স্ন্যাপড্রাগন ৮৫০। ৮৫০ মূলত স্ন্যাপ ৮৪৫ এরই একটি ওভারক্লকড্ ভার্সন। স্ন্যাপ ৮৫০ সংযুক্ত একটি ল্যাপটপ থেকে আপনি মোটামুটি ২০ ঘণ্টার ব্যাটারি ব্যাকআপ পেয়ে যাবেন, যা অন্য কোনো প্রসেসরের দ্বারা সম্ভব নয়। ৮৫০ ই সর্বপ্রথম ল্যাপটপ ব্যবহারকারীদের করে দিয়েছে ১.২ গিগাবিট পার সেকেন্ড স্পীডে ডেটা ট্রান্সফার করার সুযোগ, Windows 10 এবং Always Connect ফিচার। তবে এটি সর্বোচ্চ ৩০ এফপিএস এর ৪কে ভিডিও সাপোর্টেড। স্ন্যাপড্রাগন ৮৫০ চিপসেটের এ পর্যন্ত দুটি ডিভাইস রিলিজ হয়েছে। এগুলো হচ্ছে- Samsung Galaxy Book 2 ও Lenovo Yoga C630।

এবার আসি ২০১৭ এর বিস্ট স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ এর কথায়, ৮৩৫ এর দুটি ভার্সন রয়েছে। একটির ক্লকস্পিড ২.৪৫ গিগাহার্জ এবং অপরটির ২.৬ গিগাহার্জ। ২.৬ গিগাহার্জের চিপসেটটি শুধুমাত্র নোটবুক ও ল্যাপটপ এর জন্যে। HP Envy X2, Asus NovaGo ও Lenovo Mixx 630 এই ডিভাইসগুলোতে ব্যবহার করা হয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ (২.৬ গিগাহার্জ) চিপসেটটি।

এখন সময়টা যদি ২০১৮ না হয়ে ২০১৭ হতো তাহলে স্ন্যাপ ৮৪৫-এ যা যা বলেছি ৮৩৫ এর জন্যেও হয়ত তেমনটাই বলতাম। ব্রিলিয়ান্ট পারফরমেন্স, গুড গ্রাফিক্স নিয়ে স্ন্যাপ ৮৩৫ দাপিয়ে বেড়িয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫-এর রিলিজের আগ পর্যন্ত। তবে ৮৩৫ কে একটু বেশিই ব্যাটারি খেকো বলে মনে হয়েছে। তবে বর্তমান সময়ের পরিপ্রেক্ষিতেও স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ খুবই ভালো চিপসেট। শাওমি ও ওয়ান প্লাসের ফোনের ক্ষেত্রে ৪০ হাজার টাকার মধ্যে স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫-এর ফোন নিতে পারেন। আর স্যামসাং-এর মতো ব্রান্ডের স্ন্যাপ ৮৩৫-এর ফোনের জন্যে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত খরচ করতে পারেন নির্দ্বিধায়।

তবে মজার বিষয় হচ্ছে সম্প্রতি স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫-এর কিছু ফোন লঞ্চ হয়েছে যা পাওয়া যাচ্ছে ৩০ হাজার টাকাতেই। এছাড়া হুয়াওয়ে-এর সাব-ব্র্যান্ড Honor- ও তাদের ফ্ল্যাগশিপ চিপসেট হাইসিলিকন কিরিন ৯৭০-এর ফোন এনেছে ৩০ হাজার টাকার কমেই। ব্র্যান্ডগুলো যদি এভাবে নিজেদের মধ্যে কম্পিটিশন করে কম দামের মধ্যে ফ্ল্যাগশিপ চিপসেট ব্যবহার করে তাহলে দিনশেষে লাভ আমাদেরই হবে।

স্ন্যাপড্রাগন ৮০০ সিরিজ এতদিন একচেটিয়া দাপট দেখিয়ে আসলেও এখন আর তা হচ্ছেনা, কারণ হুয়াওয়ে, স্যামসাং-এর মতো বড় ব্র্যান্ডগুলো ও এখন অনেক ভালো ভালো চিপ বানাচ্ছে। তাই ৮০০ সিরিজের দাপট বজায় রাখতে হলে কোয়ালকমকে আরো ভালো ভালো কাজ দেখাতে হবে তাদের ফ্ল্যাগশিপ চিপসেটে।

৭০০ সিরিজ নিয়ে আবারো হাজির হবে আপনাদের সামনে পর্ব-৫ নিয়ে। আর্টিকেলটি ভালো লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। এছাড়াও জয়েন করতে পারেন আমাদের ফেসবুক গ্রুপ, পেজ এবং ইন্সটাগ্রামে। আর অবশ্যই আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করতে ভুলবেন না।

Avatar

Russell Hossain